x 
Empty Product

ফেসবুক থেকে পাওয়া আমের সব খবর

1 আমের পরিত্যক্ত ঝুুড়িতে মরিচ, মেহেদী, চাইনা কমলা

আমের পরিত্যক্ত ঝুুড়িতে মরিচ, মেহেদী, চাইনা কমলা

আমের পরিত্যক্ত ঝুুড়িতে মরিচ, মেহেদী, চাইনা কমলা লাগিয়েছি। যত্ন কম নিলেও রেজাল্ট ভালো পাচ্ছি। মনে হচ্ছে আম গ্রাহকগন এবার ঝুড়িগুলো কাজে লাগাতে পারবেন

চালু হতে যাচ্ছে ই-আম সেলারদের প্লাটফরম

আমরা যারা অনলাইনে আম নিয়ে কাজ করি তাদের এক হওয়া দরকার। আমরা বিচ্ছিন্নভাবে আছি বলেই কিছু অসৎ লোক সামান্য স্বার্থে আমের সম্ভাবনাময় এই সেক্টরটাকে নষ্ট করতে চলছে। এই সেক্টর কে বাঁচাতে হলে এবং কিছু বাড়তি সুবিধা পেতে হলে আমাদের এক হওয়ার বিকল্প নাই।।

আমরা যদি ঐক্যবদ্ধ হই তবে যে সকল সুবিধা পেতে পারি-

১। আমাদের প্রত্যেকের একটা নিবন্ধন নাম্বার থাকবে যেটা আমার পরিচয় বহন করবে। যাদের নিজস্ব আম বাগান আছে অথবা লিজ বা পার্টনারশিপের মাধ্যমে সরাসরি বাগানের সাথে সম্পৃক্ত শুধু তারাই মেম্বারশিপ পাবেন। এতে করে আমাদের একটা পরিচিতি থাকবে এবং আমার পারিচয় নাম্বারই আমাকে কাষ্টমারের কাছে গ্রহনযোগ্যতা পেতে সাহায্য করবে। আর কাষ্টমারগনও আমাদের কাছ থেকে আম কিনতে এবং অগ্রীম মুল্য পরিশোধ করতে নিরাপদ ও স্বাচ্ছন্দবোধ করবেন। যেমন ই-ক্যাব মেম্বারশিপ।

২। কুরিয়ারের সাথে কর্পোরেট চুক্তি থাকবে যখন সদস্য হিসেবে ক্ষুদ্র সেলাররাও কম খরচে তাদের আম কুরিয়ারে বুকিং করতে পারবেন।

৩। কুরিয়ার ভোগান্তি যেমন- আম চুরি, আম হারিয়ে যাওয়া, ঠিকানা ভুল ইত্যাদি সমস্যাগুলো দ্রুত সমাধান হবে।

৪। আমের দাম নিয়ে জটিলতা ও ভোগান্তি রোধে আমের নাজ্য মুল্য নির্ধারন করে আমের অনলাইন বাজারের অস্তিতিশীলতা নিয়ন্ত্রন করা যাবে।

৫। অসাধু ভুয়া অনলাইন সেলার ও ক্রেতারুপী দুষ্টু মন্তব্যকারীদের নজরদারি করা যাবে।

৬। নিজেদের মধ্যে ইউনিটি মজবুত হবে এবং একজন অন্য জনকে সাপোর্ট করার মাধ্যমে উভয়ে লাভবান হওয়া যাবে।

৭। সিজন শেষে বাৎসরিক একটা ট্যুর বা মিটআপের আয়োজন করা হবে। আমের এই সেক্টরকে কিভাবে আরও উন্নত করা যায় এ বিষয়ে আলোচনা করে সামনে বছরের জন্য প্লান তৈরি করা যাবে।

৮। বিবিধ বা এধরনের আরও কিছু যা বিজ্ঞদের থেকে আলোচনার মাধ্যমে বেরিয়ে আসবে।

সিহাব ভাই একটা গ্রুপ খুলেছেন। বেশ কয়েকজন সুপরিচিত মর্কেটলিডারও ওখানে এ্যাড হয়েছেন।

ঐখানেই আমরা আমাদের গ্রুপের নাম কি হবে, কে কে এ্যাডমিন/মডারেটর থাকবেন, কিভাবে বাকিদের গ্রুপে এ্যাড করা যায়, কবে কোথায় ফিজিক্যাল মিটআপ করবো- সকল বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে পারি।
আমি নিজেও এ্যাড হয়েছি আপনাকেও এ্যাড হবার জন্য অনুরোধ করছি। গ্রপটির লিংক https://www.facebook.com/groups/2414938872079189/

Comment (0) Hits: 110

মে মাসের ৩য় সপ্তাহের আগে রাজশাহীর আম কখনও পাকে না

মে মাসের ৩য় সপ্তাহের আগে রাজশাহীর আম কখনও পাকে না। এর বাইরে যারা আচরন করে, বুঝবেন উনি ভুলের মধ্যে আছেন।

Comment (0) Hits: 742

কালুয়া আমটা সবার আগে পাকে


কালুয়া আমটা সবার আগে পাকে। ২২ মে থেকে দিতে পারবো আশা করছি

 

Comment (0) Hits: 493

প্রতিনিয়ত আমের ওজন কমতে থাকে

#জেনে_রাখুন: প্রতিনিয়ত আমের ওজন কমতে থাকে। ২০ কেজির একটি প্যাক ২/৩দিন পর ১৮.৫ বা ১৯ কেজি হয়ে যায়।

 

Comment (0) Hits: 526

আমার কাছে ক্ষিরসাপাত ই বেস্ট

ছোট সাইজের, ভালোভাবে না পাকলে খু্‌বই টক...আর পাকলে খু্ব ই মিষ্টি। সিজনের প্রথমে আসে, পাকলে সুন্দর রং ধরে। আমার দাদার খুব পছন্দের আম ছিলো। আব্বাও সখ করে বাড়ির সামনে একটা গাছ রাখসে। তবে আমার কাছে ক্ষিরসাপাত ই বেস্ট

Comment (0) Hits: 528

কালুয়া আমটা সবার আগে পাকে (2)


কালুয়া আমটা সবার আগে পাকে। ২২ মে থেকে দিতে পারবো আশা করছি

 

Comment (0) Hits: 478

বড় গাছের আম সাইজে ছোট কিন্ত স্বাদে বেষ্ট

#জেনে_রাখুনঃ ছোট গাছের আম সাইজে বড় কিন্ত স্বাদে কম,...বড় গাছের আম সাইজে ছোট কিন্ত স্বাদে বেষ্ট।

Comment (0) Hits: 672

দিনে কত প্যাক আম পাঠালেন তার ছবি তুলে পোষ্ট করে সাফল্যতা খোঁজার বৃথা চেষ্টা করবেন না


#নোটিশ: আমার ব্যবসাটা যেহেতু আইটি বেইজড, তাই "Fozli IT Desk" নামে একটা দক্ষ প্লাটফরম তৈরি করার চেষ্টা করেছি। সাইটগুলো দেখাশুনা করা, ম্যাসেন্জিং, গ্রাফিক্স ডিজাইন ও এ্যাড রানের পাশাপাশি টিমটির অন্যতম

এ বছর রাজশাহীতে আমের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৭ হাজার ৪৬৫ হেক্টর জমিতে

এ বছর রাজশাহীতে আমের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৭ হাজার ৪৬৫ হেক্টর জমিতে। আম উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে দুই লাখ ১৩ হাজার ৪২৬ মেট্রিক টন। এর আগে এত আম বা এত পরিমাণ জমিতে আম চাষ কখনোই হয়নি। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এ বছর কমদামে আম খাওয়াতে পারবো ইনশাআল্লাহ্

Comment (0) Hits: 460